Home

ভূমিকম্প হয়

Leave a comment

ভূমিকম্প হয়

ভূমিকম্প হয় রিখ্‌টার স্কেলে
ভূমিকম্প হয় র‍্যান্ডম, এলেবেলে
ভূমিকম্প হয় হৃদয়ে আগুন জ্বেলে
ভূমিকম্প হয় সম্পৃক্ত সমীকরনে তুমি এলে
ভূমিকম্প হয় গলন্ত জীবনে
ভূমিকম্প হয় তুমি চলে গেলে

এখনো তুমি
চলে গেলে
অন্য অরণ্যে
র‍্যান্ডম ভূমিকম্প হয় ফেলে-ছেলে

ভূমিকম্প হল একদিন, অনেকদিন
সময়ের মার-প্যাঁচে রেড-ট্যাগ ছাড়াই
ইঁদুর-থেঁতো হল যারা
তারাও এক সময় আমি, অনেক-আমি
আমিও চলে গেলাম অনেকদিন, একদিন
ভূকম্পের খোঁজে
নিখোঁজ নক্ষত্র পুঞ্জের আবর্তে
যন্ত্রণার এপিসেন্টারে…

Advertisements

খেলা – ৩

Leave a comment

খেলা – ৩

ধার করা খোলস পরিয়ে
অন্য রিয়ালিটি, অন্য প্রান্তরে
চারদুয়ারি খোলা ঘরে
ঠেলে দিলো অন্ধ আইন
জন্মেছ কি মরেছ
যাও এক্ষুনি যুদ্ধে
ঢালাও হুকুম
সদ্যজাত নালঝোল-মাখা
ন্যাংটো শিশুটির এখন আর
কোন অপশ্‌ন নেই
চেক্‌মেটের চেক সই করেই
রেকারিং রিং-এ ঢোকা
“পালাবার পথ নেই, গোলাম হুসেন”
তাও হামাগুড়ি দিয়ে চলা
মাতাল স্বেচ্ছাচারি ইচ্ছাটা
মাঝে-মধ্যে
মাইগ্রেনের ব্যাথার মত
মাথাচাড়া দ্যায় অন্ধকার রাতে
ছায়াহীন নিজের ছায়ার সাথে
মুক্ত মেঘের গোড়ায় খ্যালে
শেকড়বাকড়ে শব ঢাকা খেলা
কুড়িয়ে-বাড়িয়ে কেঠো নৈশব্দ
শেখে কিছু কুচ-কাওয়াজ
অতিজাগতিক আঙ্কিক যুদ্ধ নিয়মে
কিছুক্ষন তো লড়তে হবে
যতক্ষন বেঁচে আছে বুভুক্ষু সূর্যটা
স্যাঁতসেতে চাতালে কাটতে হবে
হাবিযাবি ঘাসখাওয়া জাবর
ফাঁকা মাঠে পাংশুটে বুকে শক্তিশেল নিয়ে
সদ্যজাত নালঝোল-মাখা
ন্যাংটো শিশুটির ডাং-গুলি খেলা।

-nilmani pramanik/cedar falls, ia/april 23, 2015/

সিঁড়িভাঙ্গা নাব্যতা

4 Comments

সিঁড়িভাঙ্গা নাব্যতা

জীবনের ভগ্নাংশে লব/হরের মাঝে
সূক্ষ একটা লাইন
তাই ধরে নগ্ন নাব্যতার
যৌন খামারে
অনাবশ্যক টানাটানি
জানি
সেও একদিন দ্রবীভূত হবে
কিংবদন্তী কচ্ছপের আবছা পদচ্ছাপে
অলিখিত ডুয়ালিটির ডুবোপাহাড়
সময় মাইন
মাথাচাড়া দ্যায়
অন্ধকার সিঁড়িভাঙ্গা অঙ্কের
ক্রমশঃ ইনসিগনিফিক্যান্ট হয়ে ওঠা
পরবর্তী ধাপের মত মূল্যবোধ
নাব্যতার সাক্ষর খুঁজতে খুঁজতে
কানামাছি খেলা ডুবুরির
মরচে-ধরা ছুরির
ঋণাত্মক খাদে খত-বিক্ষত
যাযাবর জীবনের
নৌকাবিহার।


nilmani pramanik/cedar falls, iowa/april 20, 2015/

রেড ট্যাগ সেল

Leave a comment

রেড ট্যাগ সেল

দিব্বি চলছিল বাজারে
হঠাত কোত্থেকে উট্‌কো একটা
এসে সেই যে ঝুলিয়ে দিয়েছে
দুর্বল হৃদয়ে
কঠিন শমন “রেড ট্যাগ”
নির্দয় শল্যবিদ্যার রাহাজানি
আজও বয়েই চলেছি
টেনেই চলেছি নাগাড়-ঘানি…

রোজ ভাবি এই বুঝি
স্টক ক্লিয়ারেন্স স্ট্যাম্প
চৈত্রসেলে ঠেলে দ্যায়
আর সেই উট্‌কো লোকটা
মওকা বুঝে ঝপ্‌ করে
নাম-মাত্র মুল্যে
কিম্বা মুফত্‌…

ঘরপোড়া গরুর কঠিন সঙ্কট
সিঁদুরে মেঘ চুলোয় যাক
কীবোর্ডে ক্লাউড লিখ্‌তে গেলেই
ক্যাট-কেটে লাল রেড ট্যাগ
আগুনের হলকা ঝল্‌সে ওঠে
ভয়-ভয় সংক্রামক খেলা
আর কাঁহাতক
এইবেলা
চুকিয়ে দিলেই হয় ল্যাঠা
কি হবে এতো জোড়াতালি
তোড়ফোঁড়ের তকমা এঁটে
কানামাছি খেলে?

বরং যাই
মরচে-ধরা ছিপটায়
নতুন সুতো-টুতো লাগাই
বসন্ত এসেছে বরফগলা পচাডোবার জলে
হয়ত উঁকি দেবে
শাপ্‌লা কিম্বা কই
যাই… (নাঃ, “কেন যাব?” সে প্রশ্ন আর
আমার এক্তিয়ারে নেই)
দেখি যদ্দিন না শীত আসে
যদি ধরা যায়
দু’চারটে রং-বেরং ফড়িং।


nilmani pramanik/cedar falls, iowa/april 17-18, 2015/

পাহাড়-পাহাড় খেলা

2 Comments

পাহাড়-পাহাড় খেলা
——————–
[আজ (April 10, 2015) facebook-এ আমাদের একটা “ক্লোজেড গ্রুপ”-এ “এইসব পাহাড়েরা” নামে একটা লেখা শেয়ার করল একজন, সেটা দেখে কি মাথায় এলো তক্ষুনি দু’লাইন উল্টো-পাল্টা লিখে ফেললাম এবং ওখানে দিলাম। কিন্তু ওটা “ক্লোজেড গ্রুপ” নন-মেম্বার বাকিরা কেউ দেখতে পাবে(ন) না, তাই এখানেও, মানে আমার টাইম-লাইনে দিলাম!  অল্প পুঁজি, যাতে ফেসবুকের গভীরে তলিয়ে না যায়, তার জন্য এখানেও এক কপি রাখলাম!]

পাহাড়-পাহাড় খেলা

পাহাড় একটা বানিয়েছি
তিল তিল করে
তিনশো কোটি বছর ধরে
এতো ঘষা-মাজা করলাম
তেল-জলে চুবিয়ে, চাপড়ে-চুপড়ে
পাঁজি-পুঁতি ঘেঁটে নাড়ি-নক্ষত্র গুনে
ফাগুনে আগুনে সেঁকে
আধপোড়া এক উপস্বর্গ
সেই আমার তিলোত্তমা

আমার সে পাহাড় এখন স্বপ্নের শিখরে
ক্রমশঃ স্বচ্ছ থেকে স্বচ্ছতর
স্বচ্ছতর থেকে অতিস্বচ্ছতর
হতে হতে হতে…
অস্তিত্বের দূর্গে চড়ে
ভাবনার রশ্মি-গুল্মলতা জড়িয়ে
যা-কিছু হাত-পা ছোঁড়া দৈনন্দিন দীনতা
অস্থির একাকীত্ব আমার
দু’দন্ড প্রাকৃতিক গোলযোগে
মাথাচাড়া দিয়ে গজিয়ে ওঠা
সেই আমার ধোঁয়াশা পাহাড়।


nilmnai pramanik/cedar falls, ia/april 10, 2015/

জন্মদিন

1 Comment

জন্মদিন

 

এইতো সবে জন্মালাম
নাল-ঝোল-মাখা নোলা সামলে
আগাছা-পরগাছার শেকড়-বাকড় ধরে
অন্ধকারে হাতড়ে-হাতড়ে
ন্যাড়া-সম্পর্কের নাড়ি-নক্ষত্র মেপে
সবে সাঁতার শিখছি
ছিপে নতুন হল্‌দে মুগাসূতো লাগিয়ে
ধর্ম-টর্মের টোপ পরিয়ে সবে
দু-একটা পুঁটি-ফুঁটি ধরার
তোড়জোড় করছি
এর মধ্যে ঝটকা দিয়ে
ঠেলে দিলে অন্ধ ইঁদারার দিকে
আরো একধাপ
এখন তো বালাই-ষাট বাছা বলে
স্বান্তনা দেবার মা-মাসি পিসি-টিসি
আর নেই ধারে-কাছে
এখন সব ঋণাত্মক কঠিন সময়
কি যে করি
যাই, দেখি আরো একবার
গা-ঝাড়া দিয়ে একটু নড়েচড়ে বসি
সাক্ষীর কাঠগড়ায়
সেরে নিই দু-চারটে নির্লিপ্ত
সমুদ্র মন্থনের মহড়া।

 


nilmani pramanik/cedar falls, iowa/april 16, 2014/

এগজ্যাম টাইম

Leave a comment

এগজ্যাম টাইম

আজ আবার এগজ্যাম
মাঝ-দরিয়ায় কিম্বা মধ্য প্রদেশে
জ্যাম-জটের সম্ভাবনা
সবাই কি বোদ্ধা, তল্পি-তল্পা গুটিয়ে নিয়ে
গম্ভীরমুখে সমাধান করে চলেছে
পৃথিবীর তাবৎ সমস্যার ঘণমূল।
যাঃ, তোরা সারামাস অনেক খেটেছিস
তোদের আজ হাফ-ছুটি
হাফ-টাইম এর ডামাডোলে ফুররর…
শেষ করে দিই খেলা
যদিও শেষ বললেই শেষ হয়না
আঙ্কিক রেশ কিছু কিছু থেকেই যায়
মেঘলা ঘূর্ণাবর্তে
কম্পুটার স্ক্রিনে, কিবোর্ডে
কিম্বা ভার্চুয়াল উঠোনে কনফিউসড্‌ কৈমাছ
ধুলোট খ্যালে
বাঁকা কানাই সানাই বাজায় পঁপঁপোঁওওও…
পাঁচ নম্বর প্রশ্নের মিমাংসায় কে কত কচকচি করে
তার তারতম্য সিঁড়িভাঙ্গা তরজার মহড়া চলল
একদিন, দু’দিন, অনেকদিন ধরে…
অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে, শেষে উত্তর এলো “ঘ”
জেনেশুনে কেউ এরকম “পাংশুটে পাঁচ দশমিক” লেখে?
তাও আবার মাঝখানে! তবে সময়ের নয়
ক্রম বর্ধমান মেডিয়ান এ ঘ্যান-ঘেনে ভগ্নাশ
একটু একপেশে, আটের-সাতের মত।
এই দেখে মন্ত্রী বলল, আমি এসবের সাতে-পাঁচে নেই মহারাজ।
আর কি আশ্চর্য্য ঠিক তখনি স্ক্রিন-সেভার টিকটিকি-টা
টুক টুক করে প্রায় তিনবার ঠিক ঠিক ঠি বলে উঠলো
শেষের ক-টুকু কিবোর্ডে আটকালো
এগজ্যাম শেষ
এ যাত্রা অল্পের ওপর দিয়ে খেল খতম!


nilmani pramanik/cedar falls, iowa/march 03, 2014

 

 

Older Entries